ইরান সীমা লঙ্ঘন করলে ‘নরক গুলজার’ হবে

প্রকাশিত: ৯:৪১ পূর্বাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ২৮, ২০১৮

ইরান সীমা লঙ্ঘন করলে ‘নরক গুলজার’ হবে

 

যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বোল্টন ইরানকে সতর্ক করে বলেছেন, ‘ইরান যুক্তরাষ্ট্র ও এর নাগরিক বা মিত্রদের ক্ষতি করলে “নরক গুলজার” করে ছাড়ব।’ মধ্যপ্রাচ্যজুড়ে ‘বিশৃঙ্খলা, মৃত্যু ও ধ্বংসের’ বীজ বোনায় ইরানকে দোষারোপ করে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বক্তব্য দেওয়ার কয়েক ঘণ্টা পর নিরাপত্তা উপদেষ্টা এই মন্তব্য করলেন।

আজ বুধবার বিবিসি অনলাইনের খবরে জানানো হয়, ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি ট্রাম্প প্রশাসনের এমন বৈরী আচরণের সমালোচনা করেন। ইরানের সঙ্গে ২০১৫ সালের পরমাণু চুক্তি থেকে বেরিয়ে যাওয়ার পর যুক্তরাষ্ট্র সম্প্রতি নতুন করে অবরোধ আরোপ করেছে।

২০১৫ সালে ইরানের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, রাশিয়া, চীন, ফ্রান্স ও জার্মানির পরমাণু চুক্তি হয়। বারাক ওবামা যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট থাকার সময় তাঁর মধ্যস্থতায় অবরোধ তুলে নেওয়ার বিনিময়ে ইরান পারমাণবিক কর্মসূচি সীমিত করে।

জন বোল্টন বলেছেন, তেহরানে মোল্লাদের ‘হত্যার শাসনের’ ফল ভোগ করতে হবে, যদি তারা ‘মিথ্যা, প্রতারণা ও ধোঁকা’ চালিয়ে যেতে থাকে।

জাতিসংঘে নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক এই কূটনীতিক গতকাল মঙ্গলবার নিউইয়র্কে ইরানবিরোধী সম্মেলনে বক্তব্য দিতে গিয়ে এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, ‘যদি আপনারা (ইরান) আমাদের (যুক্তরাষ্ট্র), আমাদের মিত্র বা আমাদের অংশীদারদের টেক্কা দেওয়ার চেষ্টা করেন, যদি আমাদের নাগরিকদের ক্ষতি করার চেষ্টা করেন, তাহলে সত্যিকারভাবে আপনাদের নরকের মূল্য চুকাতে হবে। আমার আজকের বার্তা পরিষ্কার হওয়ার কথা: আমরা আপনাদের দেখছি, আমরা আপনাদের পেছনে লেগে থাকব।’

অতীতে ইরানের বিরুদ্ধে সামরিক অভিযান পরিচালনায় জোর দেওয়া বল্টন আরও বলেন, ইরানে অর্থনৈতিক অবরোধ আরোপে যুক্তরাষ্ট্র আরও কঠোর হতে পারে।

এর আগে নিউইয়র্কে জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে ভাষণ দিতে গিয়ে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প পরমাণু চুক্তি থেকে নিজেদের প্রত্যাহার করে নেওয়ার পক্ষে যুক্তি দেন। তিনি বলেন, ‘ইরানের নেতারা বিশৃঙ্খলা, মৃত্যু ও ধ্বংসের বীজ বুনেছে। তারা প্রতিবেশী দেশ বা সীমান্ত বা জাতিগুলোর সার্বভৌমত্বের অধিকারকে সম্মান দেয় না।’

এদিকে নিউইয়র্কে ইরানের প্রেসিডেন্ট রুহানি বলেছেন, তাঁদের ওপর ‘অন্যায়ভাবে নিষেধাজ্ঞা আরোপ’ করা হয়েছে। তিনি বলেন, কোনো দেশকে জোর করে সমঝোতার টেবিলে আনা যায় না।

  •  

সর্বশেষ ২৪ খবর