কুলাউড়ায় প্রথমবারের মতো নারী কাউন্সিলর পদে একই প্রতীকে দুই জা’র চমক

প্রকাশিত: ৭:১৬ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৮, ২০২১

কুলাউড়ায় প্রথমবারের মতো নারী কাউন্সিলর পদে একই প্রতীকে দুই জা’র চমক

কুলাউড়া প্রতিনিধি
কুলাউড়া পৌরসভা নির্বাচনে ১ ও ২ নং সংরক্ষিত মহিলা আসনে কাউন্সিলর পদে আনারস প্রতীক নিয়ে প্রতিদ্ব›িদ্বতা করে বিজয়ী হলেন দুই জা।

 

তাঁরা হলেন ১নং সংরক্ষিত মহিলা আসনে নবনির্বাচিত সুফিয়া রহমান চৌধুরী পৌরসভার বেহালা এলাকার বাসিন্দা ফয়জুর রহমান গোলাপের স্ত্রী ও ২নং সংরক্ষিত মহিলা আসনে তাসলিমা সুলতানা মনি দক্ষিণবাজার এলাকার বাসিন্দা কুলাউড়া ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির সাবেক ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক সাংবাদিক নাজমুল বারী সোহেলের স্ত্রী।

 

নাজমুল বারী সোহেল ও ফয়জুর রহমান গোলাপ চাচাতো ভাই।

 

নির্বাচন কার্যালয় ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গত ১৬ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত কুলাউড়া পৌরসভার নির্বাচনে সংরক্ষিত ২ নম্বর ওয়ার্ড থেকে প্রথমবারের মতো নারী কাউন্সিলর হিসেবে আনারস প্রতীক নিয়ে তাসলিমা সুলতানা মনি প্রতিদ্ব›িদ্বতা করে ওই ওয়ার্ডের হেভিওয়েট প্রার্থী বর্তমান নারী কাউন্সিলর আনোয়ারা বেগম ও সাবেক কাউন্সিলর মোছাম্মৎ রাজিয়া সুলতানা চৌধুরী হ্যাপিকে পরাজিত করে বাজিমাত করেন। তাসলিমা সুলতানা মনির আনারস প্রতীকে ১০২৫ ভোট পান। বর্তমান কাউন্সিলর আনোয়ারা বেগম বলপেন প্রতীক নিয়ে পান ৭৬৬ ভোট, সাবেক কাউন্সিলর রাজিয়া সুলতানা চৌধুরী অটোরিকশা প্রতীক নিয়ে পান ৫৪৭ ভোট, হনুফা আক্তার টেলিফোন প্রতীকে পান ৩৪৬ ভোট ও হাওয়ারুন নেছা চশমা প্রতীক নিয়ে পান ২০৬ ভোট।

 

এদিকে পৌরসভার ১ নম্বর সংরক্ষিত ওয়ার্ডে সুফিয়া রহমান চৌধুরী আনারস প্রতীক নিয়ে ১৫০৫ ভোট পেয়ে প্রথমবারের মতো কাউন্সিলর নির্বাচত হন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্ব›িদ্ব বর্তমান কাউন্সিলর রাবেয়া বেগম জবা ফুল নিয়ে পেয়েছেন ১৪৫০ ভোট।

 

এছাড়াও ৩ নম্বর সংরক্ষিত ওয়ার্ডে মোছাম্মৎ সুলতানা বেগম টেলিফোন প্রতীকে ১২৮০ ভোট পেয়ে কাউন্সিলর নির্বাচিত হন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্ব›িদ্ব বর্তমান কাউন্সিলর দিলারা বেগম বাস প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ১২৩৮ ভোট।

 

তাসলিমা সুলতানা মনি এক প্রতিক্রিয়ায় বলেন, গত ৩ বছর ধরে আমি আমার ৪, ৫ ও ৮ নং ওয়ার্ডের বাসিন্দাদের দু:সময়ে পাশে ছুটে গিয়েছি। করোনার লকডাউনে এলাকার কর্মহীন মানুষের মধ্যে বিভিন্ন সচেতনতামূলক কার্যক্রম চালিয়েছি ও খাদ্য সহায়তাসহ অর্থ সহযোগিতা করেছি।

 

এলাকার মানুষের পাশে ছিলাম তাই জনগণ তাঁদের মূল্যবান ভোট দিয়ে আমাকে নির্বাচিত করেছেন। তাঁদের প্রতি আমি কৃতজ্ঞ। আমি আমার ওয়ার্ড বাসিন্দাদের পাশে আছি, পাশে থাকবো আগামীতেও।

  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বশেষ ২৪ খবর