নির্বাচন একঘন্টাও পেছানো যাবে না : এইচটি ইমাম

প্রকাশিত: ৪:২৯ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৪, ২০১৮

নির্বাচন একঘন্টাও পেছানো যাবে না : এইচটি ইমাম

ডেস্ক প্রতিবেদন
আওয়ামী লীগের নির্বাচন পরিচালনা বোর্ডের কো চেয়ারম্যান ও প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক বিষয়ক উপদেষ্টা এইচটি ইমাম বলেছেন, আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচন পেছানো যাবে না।

তিনি বলেন. আমরা পরিস্কার বলেছি, ৩০ তারিখ পর্যন্ত নির্বাচন পিছিয়েছেন। আর নয়। একদিনও নয়, একঘন্টাও নয়।

বুধবার সন্ধ্যায় নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে আওয়ামী লীগের একটি প্রতিনিধি দল ইসির সঙ্গে সাাত শেষে এ কথা বলেন তিনি। এর আগে ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে ঐক্যফ্রন্টের একটি প্রতিনিধি দল ইসিতে গিয়ে নির্বাচন ৩ সপ্তাহ পেছানোর দাবি করেন।

এইচটি ইমাম বলেন, আমরা কয়েকদিন ধরে ল্য করছি নির্বাচনের পেছানোর জন্য কয়েকটি মহল বিভিণ্নভাবে কথা বলেছেন। কিন্তু নির্বাচন পেছালে কি অসুবিধা হবে তা ভেবে দেখছেন না। এর আগেও ২৯ ডিসেম্বর নির্বাচন হয়েছে সেসময় কিন্তু বড় দিন কিংবা ইংরেজি নতুন বছর কোনো সমস্যা হয়নি। ৩০ ডিসেম্বর নির্বাচন হলে কেউ যে আসবেন না তেমন কোনো বিষয় নয়।

বিএনপির দাবি হাস্যকর উল্লেখ করে তিনি বলেন, পৃথিবীর এমন কোনো দেশ নেই, যারা বিদেশিদের সুযোগ সুবিধার কথা ভেবে নির্বাচনের দিনণ ঠিক করে। আমরা একটি স্বাধীন সার্বভৌম দেশ। আমরা আমাদের সুযোগ সুবিধা দেখব।

ডিসেম্বরের পরে নির্বাচন হলে পহেলা জানুয়ারি কয়েক ল নতুন ভোটার হবে। তারা যদি নিবন্ধিত না হয়, তাহলে আদালতে রিট করলে নির্বাচন ভন্ডুল হয়ে যাবে। এটার দায়দায়িত্ব কেন এছাড়া বছরের প্রথমে স্কুলে নতুন বই বিতরণ করা হয়। সেখানেও সমস্যা দেখা দিবে।
নয়াপল্টনে পুলিশ-আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সংঘর্ষকে সন্ত্রাসী আচারণ এবং নির্বাচনি আচারণ বিধি লঙ্ঘণ অভিহিত করে এ ঘটনার বিচার এবং আগামীতে ইসিকে আরো কঠোর হওয়ার কথা বলেন এইচটি ইমাম।

অন্যদিকে গণভবণে প্রধানমন্ত্রী নির্বাচনী প্রচারণা চালাচ্ছেন বিএনপি জোটের অভিযোগ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, সেখানে কোনো নির্বাচনি প্রচারনা হচ্ছে না। যারা দলীয় মনোনয়ন চান, তারা প্রধানমন্ত্রীর দোয়া নিতে এসেছিলেন।
প্রসঙ্গত পুনঃনির্ধারিত তফসিল অনুযায়ী, মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন ২৮ নভেম্বর, মনোনয়নপত্র বাছাইয়ের দিন ২ ডিসেম্বর, প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন ৯ ডিসেম্বর এবং ভোটের দিন ৩০ ডিসেম্বর।

  •  

সর্বশেষ ২৪ খবর