বানিয়াচংয়ে ঘুমন্ত স্কুলছাত্রীকে কুপিয়েছে দুর্বৃত্তরা : গুরুতর

প্রকাশিত: ১২:১৫ পূর্বাহ্ণ, মার্চ ১১, ২০২১

বানিয়াচংয়ে ঘুমন্ত স্কুলছাত্রীকে কুপিয়েছে দুর্বৃত্তরা : গুরুতর

বানিয়াচং সংবাদদাতা
হবিগঞ্জের বানিয়াচংয়ে ঘুমন্ত এক স্কুলছাত্রীকে কুপিয়ে গুরুতর জখম করেছে দুর্বৃত্তরা। মঙ্গলবার গভীর রাতের কোনো এক সময়ে এ ঘটনাটি ঘটে। পরে বুধবার সকালে তাকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায় স্থানীয়রা।

 

সকালে বানিয়াচং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. এমরান হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানিয়েছেন, বর্তমানে কিশোরীটিকে সিলেটের এম এ জি ওসমানী হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

 

আহত কিশোরী মারজানা আক্তার (১৬) হবিগঞ্জের বানিয়াচং উপজেলার ইকরাম গ্রামের মোস্তফা মিয়ার মেয়ে। সে স্থানীয় একটি স্কুলের ৮ম শ্রেণীর শিক্ষার্থী।
স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার রাতে বাড়ির ঘরে একা ঘুমিয়ে ছিলেন ওই ছাত্রী। সকালের দিকে পার্শ্ববর্তী বাড়ির একজন তাকে ডাকতে গিয়ে দেখতে পান রক্তাক্ত ও অচেতন অবস্থায় সে মাটিতে পড়ে আছে। এ সময় তার চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করে স্থানীয়রা।

 

মারজানার মা মধুবালার অভিযোগ, পূর্বশত্রæতার জের ও জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জেরে মারজানার ওপর হামলা করা হয়েছে। হামলার সাথে মারজানার খালাতো ভাই মোশাররফ ও তার সহযোগিরা জড়িত। ১৫ বছর আগে তার স্বামী মারা যান। এরপর সম্পত্তির লোভে কয়েকবছর আগে মারজানার বড়বোন ফারজানাকেও খুন করা হয়েছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

 

ওসি মো. এমরান হোসেন জানান, তাকে উদ্ধারের পর বুধবার সকালে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে সকালেই তাকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

 

ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের উপ পরিচালক ডা. হিমাংশু লাল রায় জানান, সে এখন আশংকামুক্ত। মারজানা সুচিকিৎসার ব্যাপারে যাবতীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে বলেও জানান তিনি।

  •  

সর্বশেষ ২৪ খবর