মাঠে নেই বিরোধীজোটের প্রার্থীরা : কানাইঘাটে নির্বাচনী তৎপরতায় আ.লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীরা

প্রকাশিত: ২:৫২ অপরাহ্ণ, অক্টোবর ১৮, ২০১৮

মাঠে নেই বিরোধীজোটের প্রার্থীরা : কানাইঘাটে নির্বাচনী তৎপরতায় আ.লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীরা

কানাইঘাট প্রতিনিধি
আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে সিলেট-৫ আসনে ক্ষমতাসীন দলের মনোনয়ন প্রত্যাশীরা নির্বাচনী মাঠে ব্যাপক তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছেন। অপরদিকে বিএনপি জোটের মনোনয়ন প্রত্যাশীরা পুলিশের বাঁধায় কোন ধরনের নির্বাচনী প্রচারণা করতে পারছেন না বলে কানাইঘাট উপজেলা বিএনপি ও বিরোধী জোটের নেতৃবৃন্দরা জানিয়েছেন।
কানাইঘাট জুড়ে দলীয় নেতাকর্মী ও সমর্থকদের নিয়ে দাপঠের সাথে নির্বাচনী মাঠে সভা-সমাবেশ, প্রচার-প্রচারনা ও সামাজিক অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকে প্রতিদিন ভোটারদের কাছে সরকারের উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড তুলে ধরে ভোট প্রার্থনা করছেন আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশিরা।
গত কয়েকদিন ধরে সিলেট-৫ আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী বিগত সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাওয়া পরে দলের সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অনুরোধে মনোনয়ন প্রত্যাহারকারী বীর মুক্তিযোদ্ধা মাসুক উদ্দিন আহমদ দলীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে সাঁতবাক ইউনিয়ন এলাকায় ব্যাপক প্রচারণা ও সভা-সমাবেশে যোগদান করেন। অপর মনোনয়ন প্রত্যাশী রূপালী ব্যাংকের সাবেক চেয়ারম্যান কেন্দ্রীয় যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ড. আহমদ আল কবির গত বৃহস্পতিবার কানাইঘাট সদর, চতুল এলাকায় গণসংযোগের পাশাপাশি বিভিন্ন অনুষ্ঠানে যোগদান করেন। আওয়ামী লীগ থেকে আরেক মনোনয়ন প্রত্যাশী ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের ৩৫নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ফয়জুল মুনির চৌধূরী উপজেলার সর্দারমাটি, ব্রাহ্মণ গ্রামের সুরমা নদীর ভাঙ্গন পরিদর্শন ও কর্মীসভায় অংশগ্রহণ, সীমার বাজার, গাছবাড়ী ত্রিমোহণী পয়েন্ট, বড়দেশ এলাকা, বড়চতুল, মূলাগুল ও চিন্তার বাজার এলাকায় নির্বাচনী প্রচারণা চালিয়ে সর্বস্তরের লোকজনদের সাথে মতবিনিময় এবং একটি ফুটবল খেলার অনুষ্ঠানে যোগদান করেন।
আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশীরা নির্বাচনী মাঠে পুরোদমে সক্রীয় থাকলেও বিএনপি-জামায়াতের মনোনয়ন প্রত্যাশীরা এক ধরনের পালিয়ে বেড়াচ্ছেন। পুলিশের বাঁধায় তাঁরা কোথাও কর্মী, সমর্থকদের নিয়ে কোন ধরনের সভা-সমাবেশ, গণসংযোগ করতে পারছেন না। নির্বাচনী মাঠে বিরোধী জোটের কোন ধরনের তৎপরতা চোখে পড়ছেনা। গ্রেপ্তারের ভয়ে পদদারী বিএনপি ও জামায়াত তাদের অঙ্গ সংগঠনের উপজেলা ও ইউনিয়ন পর্যায়ের সক্রিয় নেতারা গা ঢাকা দিয়া আছেন।
বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশী চাকসুর সাবেক আপ্যায়ন সম্পাদক কানাইঘাট উপজেলা বিএনপির সভাপতি মামুন রশীদ মামুন জানিয়েছেন, থানা পুলিশ তাদের কোন ধরনের দলীয় তৎপরতা ও নির্বাচনী প্রচারণা চালাতে দিচ্ছেনা। কোথাও ৪/৫জন বিএনপি নেতাকর্মী বসলে সেখানে গিয়ে পুলিশ হানা দেয়। থানায় বিরোধী নেতাকর্মীদের হয়রাণী করতে তাঁর ভাষায় মিথ্যা নাশকতা মামলা পেন্ডিং সেই মামলার আসামী করে দলীয় নেতাকর্মীদের গ্রেফতার করে হয়রাণী করা হচ্ছে। তিনি নির্বাচন সুষ্ট করতে হলে বিরোধীদলের নেতাকর্মীদের প্রচারনার সমান সুযোগ করার দাবি জানান।

  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বশেষ ২৪ খবর