শাবিপ্রবির ওয়েবসাইটে ৩৯% বর্ধিত ভর্তি ফি’র নোটিশ : শিক্ষার্থীদের প্রতিবাদ

প্রকাশিত: ৪:৪৮ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ৬, ২০১৮

শাবিপ্রবির ওয়েবসাইটে ৩৯% বর্ধিত ভর্তি ফি’র নোটিশ : শিক্ষার্থীদের প্রতিবাদ

হাবিব রহমান, শাবিপ্রবি
গত বছরের তুলনায় ভর্তি ফি ৩৯ শতাংশ বৃদ্ধি করে ওয়েবসাইটে নোটিশ দিয়েছে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। আগামী ১১ নভেম্বর থেকে শুরু হওয়া ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের ১ম বর্ষ ১ম সেমিস্টারের ভর্তির নোটিশে বিগত বছরের তুলনায় ২হাজার ৬শত ৫০ টাকা (৩৯ শতাংশ) বৃদ্ধি করে ৯হাজার ৫শ’ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে যা গত বছর ছিল ৬হাজার ৮শত ৫০ টাকা।

মঙ্গলবার বর্ধিত ভর্তি ফি নির্ধারণের প্রতিবাদে পৃথকভাবে বিক্ষোভ-মিছিল ও সমাবেশ করেছে সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্ট ও জাতীয় ছাত্রদল। এদিকে সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্টের পক্ষ থেকে উপাচার্য বরাবর স্বারকলিপি প্রদান করা হয়।

বিশ্ববিদ্যালয় ওয়েবসাইট সূত্রে জানা যায়, ভর্তির জন্য শিার্থীদেরকে ভর্তি পরীক্ষার সময়কার এডমিট কার্ড, এসএসসি বা সমমান ও এইচএসসি বা সমমান পরীার মূল নম্বরপত্র ও সার্টিফিকেট এবং প্রয়োজনীয় প্রায় ৯হাজার ৫শ’ টাকা সাথে নিয়ে আসতে হবে। এছাড়াও কোটায় ভর্তি হতে ইচ্ছুক মেধা তালিকায় উত্তীর্ণ ছাত্র-ছাত্রীদেরকে ভর্তির যোগ্যতা প্রমাণের জন্য যথাযথ সনদপত্রের মূল কপি এবং প্রার্থীদের প্রতিটি সনদপত্র ও নম্বরপত্রর ২টি সত্যায়িত ফটোকপি অবশ্যই নিয়ে আসতে হবে। চা শ্রমিকদের জন্য বিগত ছয় মাসের মজুরি বিবরনী প্রশংসা প্রত্রের সাথে জমা দিতে হবে।

এদিকে ভর্তি কমিটির সভাপতি অধ্যাপক ড. শামসুল হক প্রধান আগামী ১১ নভেম্বর থেকে ১৪ নভেম্বর পর্যন্ত ভর্তি কার্যক্রম চলবে বলে নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, ১১ নভেম্বর সকাল নয়টায় ‘বি-১’ ইউনিটে মেধাতালিকার ১-৬০০ এবং পরদিন একই ইউনিটের ৬০১-৯৮০ এবং ‘বি-২’ ইউনিটের মেধাতালিকার ১-৩০ পর্যন্ত ও বিভিন্ন কোটার সাক্ষাতকার ও ভর্তি অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়াও ১৩ নভেম্বর ‘এ’ ইউনিটের বিজ্ঞান বিভাগের মেধাতালিকার ১-২২০ ও বাণিজ্যের ১-৮৩ পর্যন্ত এবং পরদিন একই ইউনিটের মানবিক মেধাতালিকার ১-৩০১ ও বিভিন্ন কোটার সাক্ষাতকার ও ভর্তি অনুষ্ঠিত হবে।

বর্ধিত ভর্তি বিষয়ে উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ বলেন, শিক্ষার্থীদের সুবিধার্থে ওয়েবসাইটে টাকার একটি পরিমাণ উল্লেখ করা হয়েছে, কিন্তু চূড়ান্ত অনুমোদন দেয়া হয়নি। ভর্তি ফি বাড়ানোর সিদ্ধান্তও নেয়া হয়নি আর বাড়লেও এত বেশি হবে না। একাডেমিক কাউন্সিলের মিটিংয়ের পরই ভর্তি ফি বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।
ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ ও সমাবেশ:

এদিকে ভর্তি ফি বৃদ্ধির প্রতিবাদে মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয়ে পৃথকভাবে বিক্ষোভ-মিছিল ও সমাবেশ করে সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্ট ও জাতীয় ছাত্রদল।
এসময় উপস্থিত ছিলেন- সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্টের আহ্বায়ক প্রসেঞ্জিৎ রুদ্র, সাধারণ সম্পাদক নাজিরুল আযম বিশ্বাস, মঈনুদ্দিন মিয়া, তৗহিদুজ্জামান জুয়েল এবং জাতীয় ছাত্রদলের সভাপতি রামকৃষ্ণ দাস, সাধারণ সম্পাদক রুপেল চাকমা, অমৃত রায়, ওসমান গণি, মিহির দেবনাথ প্রমূখ।

  •  

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

সর্বশেষ ২৪ খবর